Financial Inclusion in Bangladesh: Focus Writing

Financial Inclusion : সনাতন দা‘র আড্ডার Financial Inclusion এরকম আরও এবং কার্যকরী পোস্ট আপডেট পেতে notification subscribe করে রাখুন।

আড্ডার নতুন পোস্ট আপনাকেই খুজে নিবে। নিচের ফেসবুক বাটনে ক্লিক করে Financial Inclusion : Focus Writing আপনার টাইমলাইনে শেয়ার করে রাখুন।

Financial Inclusion in Bangladesh

বাংলাদেশের ব্যাংকিং অঙ্গনে বর্তমানে ‘Financial Inclusion’ ধারণাটি সবচেয়ে বেশি আলোচিত। মূলত স্বচ্ছ ও সুষ্ঠু উপায়ে ব্যাংকের মাধ্যমে আর্থিক সেবাবঞ্চিত সাধারণ মানুষের কাছে সাধ্যের মধ্যে সঠিক আর্থিক সেবা পৌঁছানোর কৌশলগত প্রক্রিয়ার নামই ‘আর্থিক অন্তর্ভুক্তকরণ’ বা ‘Financial Inclusion’।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর অধ্যাপক ড. আতিউর রহমান বলেন, গ্রাহক হিসেবে বিভিন্ন আয়ের মানুষের উপস্থিতি পুরো আর্থিক খাতের স্থিতিশীলতা বাড়ায়। অন্যদিকে আর্থিক সেবা খাত যদি স্থিতিশীল থাকে তবে আর্থিক সেবার ক্রয়মূল্য কমে আসে। এর ফলে আরো বেশি বেশি গ্রাহক আর্থিক সেবা নিতে আগ্রহী হয়ে ওঠেন। অর্থাৎ আর্থিক সেবা খাতের স্থিতিশীলতার ফলেও Financial Inclusion ঘটে।”

এ কথা সত্য যে, প্রতিযােগিতামূলক বৈশ্বিক অর্থনৈতিক বাস্তবতায় উন্নয়নশীল একটি দেশের এগিয়ে চলার জন্য Financial Inclusion একটি অন্যতম হাতিয়ার। তাই দেশের টেকসই অর্থনৈতিক কাঠামাে গড়ে তােলার লক্ষ্যে আর্থিক সেবা বঞ্চিত ও তৃণমূল পর্যায়ের বিশাল জনসাধারণকে Financial Inclusion এর আওতায় নিয়ে আসার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। যেমন:

০১। সমাজের সুবিধা বঞ্চিত এবং আর্থিক সেবা বহির্ভূত জনগােষ্ঠীকে ব্যাংকিং সেবার আওতায় নিয়ে আসার জন্য বিভিন্ন সময়ে সার্কুলার জারি করে ন্যূনতম ১০ টাকা জমাকরণের মাধ্যমে কৃষক, তাঁতি, পরিচ্ছন্নতা কর্মী, পাদুকা ও চামড়াজাত পণ্য প্রস্তুতকারী ক্ষুদ্র কারখানার কারিগর, তৈরি পােশাক শিল্পে কর্মরত শ্রমিক, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ও সকল প্রতিবন্ধী ব্যক্তিসহ বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষের জন্য ব্যাংকে হিসাব খােলার কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। সর্বশেষ ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এ কাতারে যুক্ত হয়েছে বিলুপ্ত ছিটমহলবাসীগণ। বাংলাদেশের মূল ভূখণ্ডে একীভূত ১১১টি পূর্বতন ছিটমহলবাসীগণ যাতে ১০ টাকায় ব্যাংক হিসাব খুলতে পারে সেজন্য বাংলাদেশ ব্যাংক হতে সকল তফসিলি ব্যাংককে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত এ খাতে প্রায় ১,৭৪,৩৩,২১৭টি হিসাব খােলা হয়েছে।

০২। আর্থিক সেবাবঞ্চিত তৃণমূল জনগােষ্ঠী, ক্ষুদ্র/প্রান্তিক/ভূমিহীন কৃষক, প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত নিম্ন আয়ের পেশাজীবীদের প্রাতিষ্ঠানিক আর্থিক সেবাভুক্তির আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যে এবং তাদের আয় উৎসারী কর্মকাণ্ডকে বিস্তৃত করার উদ্দেশ্যে তাদেরকে সহজতর শর্তে ঋণ প্রদানের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের নিজস্ব উৎস থেকে ২০০ কোটি টাকার একটি আবর্তনশীল পুনঃঅর্থায়ন তহবিল গঠন করা হয়েছে। উক্ত তহবিল হতে একজন গ্রাহক এককভাবে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার এবং দলগতভাবে ৫ লক্ষ টাকা ঋণ গ্রহণ করতে পারে। গ্রাহক পর্যায়ে এ ঋণের সর্বোচ্চ সুদ হার ৯.৫ শতাংশ যা ক্রমহ্রাসমান স্থিতির ভিত্তিতে নির্ধারিত হয়। এ স্কীমের আওতায় ফেব্রুয়ারি ২০১৮ পর্যন্ত গ্রাহক পর্যায়ে প্রায় ৮১.১৯ কোটি টাকার ঋণ সুবিধা প্রদান করা হয়েছে। এই পর্যন্ত ৪০টি ব্যাংক এই স্কীমের আওতায় অংশগ্রহণমূলক চুক্তি সম্পাদন করেছে।

৩। পথশিশু ও কর্মজীবী শিশুদের কষ্টার্জিত অর্থ ব্যাংকে জমা করা ও তাদের ভবিষ্যত সুরক্ষার জন্য ২০১৪ সালে চালুকৃত ১০ টাকার বিশেষ হিসাব খােলার নীতিমালা শিথিল করা হয়েছে। বর্তমানে পথশিশু ও কর্মজীবী শিশু-কিশােরদের পিতামাতা (Biological Parents) থাকলে, সেক্ষেত্রে পিতা ও মাতার মধ্যে যে কোন একজন এবং পথশিশু ও কর্মজীবী শিশুকিশােরের যৌথ স্বাক্ষরে হিসাবটি পরিচালনা করা যাবে। উল্লেখ্য, ডিসেম্বর ২০১৭ পর্যন্ত পথশিশু ও কর্মজীবী শিশুদের নামে খােলা হিসাব সংখ্যা ৪,৫৪৪ টি এবং জমার পরিমাণ ২৭.১১ লক্ষ টাকা। পথশিশুদের মধ্যে ব্যাংকে হিসাব খােলা বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির জন্যও Save the children, USA এর সাথে যৌথভাবে বেশ কিছু কার্যক্রম চলমান রয়েছে ।

ক্রমবিবরণহিসাব সংখ্যা (ডিসেম্বর/২০১৭)জমার পরিমাণ
০১১০ টাকায় ব্যাংক হিসাব১,৭৪,৩৩,২১৭টি
০২পথশিশু ও কর্মজীবী শিশুদের নামে খােলা হিসাব৪,৫৪৪ টি২৭.১১ লক্ষ
০৩স্কুল ব্যাংকিং১৪,৫৩,৯৩৬টি১,৩৬২.৯৬ কোটি
সোর্স: অর্থনৈতিক সমীক্ষা-২০১৮

০৪। Financial Inclusion কার্যক্রমের অন্যতম একটি পদক্ষেপ হল স্কুল ব্যাংকিং। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণের মাধ্যমে তাদেরকে দেশের আর্থিক সেবার আওতায় নিয়ে আসা হলাে স্কুল ব্যাংকিংয়ের লক্ষ্য। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত সর্বমােট ১৪,৫৩,৯৩৬টি স্কুল ব্যাংকিং হিসাব খােলা হয়েছে। উক্ত হিসাবসমূহের বিপরীতে মােট জমা হয়েছে ১,৩৬২.৯৬ কোটি টাকা। বাংলাদেশে কার্যরত ৫৭টি তফসিলি ব্যাংকের মধ্যে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত মােট ৫৬টি ব্যাংক স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করছে। স্কুল ব্যাংকিং কার্যক্রমকে অধিকতর গতিশীলকরণে ম্যানুয়াল পদ্ধতির পরিবর্তে অনলাইন/মােবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস পদ্ধতি ব্যবহার করে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফিসহ অন্যান্য সকল প্রকার ফি/চার্জ সংগ্রহের উদ্যোগ গ্রহণে ব্যাংকগুলােকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

০৫। এখনো দেশের অনেক প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ ব্যাংকিং সেবার সঙ্গে যুক্ত হতে পারেননি। তাদের অধিকাংশই গ্রামীণ এলাকার সাধারণ মানুষ। তাই গ্রামীণ জনপদের মানুষের কাছে ব্যাংকিং সেবা পৌঁছাতে ব্যাংকগুলোর অন্তত অর্ধেক শাখা পল্লী অঞ্চল বা গ্রামে খোলার জন্য নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে শহরের চেয়ে গ্রামেই এখন ব্যাংকের শাখা বেশি। দেশে বর্তমানে ব্যাংক শাখার সংখ্যা ৯৭২০, যার মধ্যে অর্ধেকের বেশি পল্লী শাখা।

০৬। Financial Inclusion এর অভিযানকে আরেক ধাপ এগিয়ে নিতে এজেন্ট ব্যাংকিং নীতিমালা প্রণয়ন করেছে বাংলাদেশে ব্যাংক। সারা দেশে নেটওয়ার্ক আছে, এমন প্রতিষ্ঠান ছাড়াও শিক্ষিত ও প্রযুক্তিনির্ভর কাজে দক্ষতাসম্পন্ন ব্যক্তিও ব্যাংকের এজেন্ট হতে পারবেন। এজেন্টের মাধ্যমে ব্যাংকগুলো তাদের কিছু কিছু ব্যাংকিং সেবা যেমন বৈদেশিক রেমিট্যান্স বিতরণসহ স্বল্প পরিমাণের অর্থ জমা ও উত্তোলন, ব্যাংক হিসাব খোলার কাগজপত্রাদি বিতরণ ও সংগ্রহ, ছোট আকারের ঋণ বিতরণ ইত্যাদি কার্যক্রম প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনপদে পৌঁছে দিতে পারবে। এরই মধ্যে কয়েকটি ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং কার্যক্রম শুরু করেছে।

০৭। ক্ষুদ্র ঋণের মাধ্যমে বাংলাদেশে গরিব মানুষের অবস্থার উন্নয়নের পাশাপাশি Financial Inclusion  এর প্রসার ঘটছে। বাংলাদেশ ব্যাংক Financial Inclusion  এর বিভিন্ন উদ্যোগের সঙ্গে ক্ষুদ্র ঋণ সংস্থাকে নানাভাবে যুক্ত করেছে। যেসব ব্যাংকের পর্যাপ্ত শাখা নেটওয়ার্ক নেই, সেগুলোকে এমএফআই লিংকেজের মাধ্যমে এসএমই ও কৃষিঋণ বিতরণে উত্সাহিত করা হয়েছে। এখন ক্ষুদ্র ঋণের একটি বড় অংশের জোগান দিচ্ছে ব্যাংকিং খাত। বর্তমানে প্রায় তিন কোটি গরিব মানুষ গ্রামীণ ব্যাংক ও ৭০০ এমএফআইয়ের মাধ্যমে ক্ষুদ্র ঋণসেবা পাচ্ছে।

সবশেষে, Financial Inclusion  একক কোনো দেশের নয়, এটি এখন বৈশ্বিক বিষয়ে পরিণত হয়েছে। সারা বিশ্বই এখন Financial Inclusion প্রসারে বিশেষ মনোযোগ দিয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক এরই মধ্যে অ্যাসোসিয়েশন অব ফিন্যান্সিয়াল ইনক্লুশনের (এএফআই) সদস্যপদ লাভ করেছে। ফলে খুব সহজেই সহযোগী রাষ্ট্রসংঘের Financial Inclusion সহায়ক তথ্য-উপাত্ত সম্পর্কে অবগত হয়ে বাংলাদেশের জন্য উপযোগী নীতিমালা তৈরি করা সম্ভব হয়েছে।

ড. আতিউর বলেন, বর্তমানে জাতীয় অর্থনীতিতে যে স্থিতিশীল অবস্থা দেখা যাচ্ছে তার কৃতিত্ব বহুলাংশে বাংলাদেশ ব্যাংকের Financial Inclusion কৌশলের। তিনি বলেন, যথাযথ Financial Inclusion নিশ্চিত করা গেছে বলেই আশেপাশের দেশগুলোর তুলনায় বাংলাদেশের সম্ভাব্য প্রবৃদ্ধির চিত্র উজ্জ্বলতর হয়েছে; মুদ্রস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে; ডলারের সাথে টাকার বিনিময় হার স্থিতিশীল রয়েছে; মাথাপিছু আয় ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে এবং বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের অবস্থাও অত্যন্ত সন্তোষজনক পর্যায়ে রয়েছে।

Financial Inclusion ছাড়া আরও যা পড়বেন:

bcs written syllabus সাথে bank: কী পড়ব, কোথা থেকে কতটুকু

bangladesh bank assistant director: স্বল্প সময়ে প্রস্তুতি

Arts Faculty-র প্রশ্নের আদলে করা ব্যাংক Model Questions

international general knowledge for bank preli: 175টি

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট: ফোকাস রাইটিং ফর ব্যাংক

general knowledge bangladesh for bank: ৮২টি

সন্ধির চৌদ্দ-গুষ্ঠী: এর বাইরে আর নেই(210টি মাত্র)

Translation Practice

ধ্বনি ও বর্ণ: গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা এবং সংক্ষেপে যা পড়তে হবে

Arts Faculty-র প্রশ্ন ও ডিজিটাল হৈম-অপু

পারিভাষিক শব্দ(২৫৬টি): কমন পড়বেই

উৎস অনুসারে শব্দের শ্রেণিবিভাগ: বিসিএস ও ব্যাংক

এক কথায় প্রকাশ: ৪৭৬টি (এর বাইরে আর কিছু নেই)

প্রয়োগ-অপপ্রয়োগ ও বাক্যশুদ্ধি: ২৫০টি

সোনালী ব্যাংক সিনিয়র অফিসার-২০১৮ এর সম্পূর্ণ সমাধান

sonali bank senior-officer question : ২৮১টি(বাছাইকৃত)

চর্যাপদ (charyapada): যেভাবে পড়া উচিত

bank job circular: total preparation

আপনার টাইমলাইনে শেয়ার করতে ফেসবুক আইকনে ক্লিক করুনঃ
Updated: May 14, 2019 — 2:31 pm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *