অকাল কুষ্মাণ্ড: উৎস ও সারমর্ম

প্রবাদ-প্রবচন: অকাল কুষ্মাণ্ড

উৎস

কুণ্ডের সাধারণ অর্থ কুমড়া বা কাঁকুড় (কর্কোটিকা, শসা জাতীয় লতাফল)। এর নানাবিধ অর্থ থাকলেও আমাদের দেশে এর অর্থ অকালে বা অসময়ে উৎপন্ন কুমড়ার মত অকেজো, অনুপযুক্ত, মূর্খ কিংবা পরিবার ও সমাজের জন্য ক্ষতিকর মানুষ। মহাভারতের কাহিনীতে গান্ধার (আফগানিস্তানের কান্দাহার) দেশের রাজা সুবলের মেয়ে গান্ধারীর সাথে বিয়ে হয়েছিল পান্ডুপুত্র ধৃতরাষ্ট্রের। কুমারী থাকাকালে গান্ধারী শিবের কাছে শতপুত্রের মা হবার বর পেয়েছিলেন এবং ধৃতরাষ্ট্রের সাথে বিয়ে হবার পর বেদব্যাস মুনির কাছ থেকেও একই বর পান। | কিন্তু বিয়ের পর দীর্ঘ দু’বছর গর্ভধারণ করার পরও যখন তার সন্তান-প্রসব হল না তখন তিনি রেগেমেগে নিজের পেটে আঘাত করে গর্ভপাত ঘটালেন। ফলে তার গর্ভ থেকে নির্গত হল লোহার মত কঠিন এক মাংসপিণ্ড। মাংসপিণ্ডটি শীতল জলে পরিষ্কার করার পর ব্যাসদেব তা একশটি জ্বণে বিভক্ত করেন এবং একশটি ঘৃতপূর্ণ কলসিতে এক এক করে সেগুলো রাখলেন। এর একবছর পর প্রথম কলসির ঢাকনা খুলে দেখা গেল নবজাত দুর্যোধনকে। অতঃপর পরবর্তী একবছর এক মাসের মধ্যে একে একে জন্ম হল ১০০টি পুত্র ও দুঃশলা নামে এক কন্যার। মহাভারতের আদিপর্বের ১১৪ অধ্যায়ের ১৭ সংখ্যক শ্লোক অনুসারে, এই একশটি পুত্রের অন্যায় ষড়যন্ত্রের কারণে কুরুক্ষেত্রের ১৮ দিনব্যাপী মহাযুদ্ধে কুরুবংশ ধ্বংস হয়।

অকালজাত এই একশ পুত্রের রাজ্যলোভ, অন্যায় আচার-আচরণ, মাত্রাতিরিক্ত বিলাস এবং ভোগস্পৃহা ভয়াবহ পরিণতি এনেছে বলে এদেরকে অকাল কুষ্মাণ্ড বলা হয়।

সার সংক্ষেপ

অকাল কুষ্মাণ্ডের নানাবিধ অর্থ থাকলেও আমাদের দেশে এর অর্থ অকালে বা অসময়ে উৎপন্ন কুমড়ার মত অকেজো, অনুপযুক্ত, মূর্খ কিংবা পরিবার ও সমাজের জন্য ক্ষতিকর মানুষ। মহাভারতের কাহিনী অনুসারে, শতপুত্রের মা হবার বরপ্রাপ্ত গান্ধারীর বিয়ে হয় পান্ডুপুত্র ধৃতরাষ্ট্রের সাথে। কিন্তু বিয়ের পর দীর্ঘ দু’বছর গর্ভধারণ করার পরও যখন তার সন্তান-প্রসব হল না তখন তিনি রেগেমেগে নিজের পেটে আঘাত করে গর্ভপাত ঘটালেন। ফলে তার গর্ভ থেকে নির্গত হল লোহার মত কঠিন এক মাংসপিণ্ড। পরবর্তীতে ব্যাসদেবের নৈপূন্যতায় সেখান থেকে  জন্ম হল ১০০টি পুত্র ও দুঃশলা নামে এক কন্যার। অকালজাত এই একশ পুত্রের রাজ্যলোভ, অন্যায় আচার-আচরণ, মাত্রাতিরিক্ত বিলাস এবং ভোগস্পৃহা ও অন্যায় ষড়যন্ত্রের কারণে কুরুক্ষেত্রের ১৮ দিনব্যাপী মহাযুদ্ধে কুরুবংশ ধ্বংস হয় বলে এদেরকে অকাল কুষ্মাণ্ড বলা হয়।

সূচিপত্র

পরবর্তী প্রবাদ-প্রবচন(উৎস ও সারমর্ম): অগস্ত্যযাত্রা

সার সংক্ষেপ

অকাল কুষ্মাণ্ডের নানাবিধ অর্থ থাকলেও আমাদের দেশে এর অর্থ অকালে বা অসময়ে উৎপন্ন কুমড়ার মত অকেজো, অনুপযুক্ত, মূর্খ কিংবা পরিবার ও সমাজের জন্য ক্ষতিকর মানুষ। মহাভারতের কাহিনী অনুসারে, শতপুত্রের মা হবার বরপ্রাপ্ত গান্ধারীর বিয়ে হয় পান্ডুপুত্র ধৃতরাষ্ট্রের সাথে। কিন্তু বিয়ের পর দীর্ঘ দু’বছর গর্ভধারণ করার পরও যখন তার সন্তান-প্রসব হল না তখন তিনি রেগেমেগে নিজের পেটে আঘাত করে গর্ভপাত ঘটালেন। ফলে তার গর্ভ থেকে নির্গত হল লোহার মত কঠিন এক মাংসপিণ্ড। পরবর্তীতে ব্যাসদেবের নৈপূন্যতায় সেখান থেকে  জন্ম হল ১০০টি পুত্র ও দুঃশলা নামে এক কন্যার। অকালজাত এই একশ পুত্রের রাজ্যলোভ, অন্যায় আচার-আচরণ, মাত্রাতিরিক্ত বিলাস এবং ভোগস্পৃহা ও অন্যায় ষড়যন্ত্রের কারণে কুরুক্ষেত্রের ১৮ দিনব্যাপী মহাযুদ্ধে কুরুবংশ ধ্বংস হয় বলে এদেরকে অকাল কুষ্মাণ্ড বলা হয়।

সূচিপত্র

পরবর্তী প্রবাদ-প্রবচন(উৎস ও সারমর্ম): অগস্ত্যযাত্রা

সার সংক্ষেপ

অকাল কুষ্মাণ্ডের নানাবিধ অর্থ থাকলেও আমাদের দেশে এর অর্থ অকালে বা অসময়ে উৎপন্ন কুমড়ার মত অকেজো, অনুপযুক্ত, মূর্খ কিংবা পরিবার ও সমাজের জন্য ক্ষতিকর মানুষ। মহাভারতের কাহিনী অনুসারে, শতপুত্রের মা হবার বরপ্রাপ্ত গান্ধারীর বিয়ে হয় পান্ডুপুত্র ধৃতরাষ্ট্রের সাথে। কিন্তু বিয়ের পর দীর্ঘ দু’বছর গর্ভধারণ করার পরও যখন তার সন্তান-প্রসব হল না তখন তিনি রেগেমেগে নিজের পেটে আঘাত করে গর্ভপাত ঘটালেন। ফলে তার গর্ভ থেকে নির্গত হল লোহার মত কঠিন এক মাংসপিণ্ড। পরবর্তীতে ব্যাসদেবের নৈপূন্যতায় সেখান থেকে  জন্ম হল ১০০টি পুত্র ও দুঃশলা নামে এক কন্যার। অকালজাত এই একশ পুত্রের রাজ্যলোভ, অন্যায় আচার-আচরণ, মাত্রাতিরিক্ত বিলাস এবং ভোগস্পৃহা ও অন্যায় ষড়যন্ত্রের কারণে কুরুক্ষেত্রের ১৮ দিনব্যাপী মহাযুদ্ধে কুরুবংশ ধ্বংস হয় বলে এদেরকে অকাল কুষ্মাণ্ড বলা হয়।

সূচিপত্র

পরবর্তী প্রবাদ-প্রবচন(উৎস ও সারমর্ম): অগস্ত্যযাত্রা

আপনার টাইমলাইনে শেয়ার করতে ফেসবুক আইকনে ক্লিক করুনঃ
Updated: May 13, 2019 — 12:50 pm

1 Comment

Add a Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *